সরকার ভোটের রাজনীতি রাখেনি : সাইফুল হক

আপডেট: 07:32:44 18/01/2020



img
img

চন্দন দাস, বাঁকড়ি (বাঘারপাড়া) থেকে : বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, এ সরকার ভোটের রাজনীতি রাখেনি। তারা গায়ের জোরে ক্ষমতায় আছে। দেশের মানুষ আজ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। সে কারণে ভোটের অধিকার রক্ষা করতে প্রয়োজনে রাস্তায় নামতে হবে।
সাইফুল হক শনিবার যশোরের বাঁকড়িতে অমল সেন স্মরণসভায় বক্তৃতা করছিলেন।
প্রখ্যাত কমিউনিস্ট নেতা অমল সেনের ১৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আগের দিন শুক্রবার স্মরণমেলা শুরু হয়। ওই দিন রাশেদ খান মেননসহ বিশেষত ওয়ার্কার্স পার্টির নেতারা স্মরণসভায় বক্তব্য রাখেন। দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে ওয়ার্কার্স পার্টি মার্কসবাদীর নেতাকর্মীদের বিপুল উপস্থিতি ছিল। তাদের আমন্ত্রণে বামপন্থী কয়েকটি দলের নেতারা এসেছিলেন অনুষ্ঠানে।
শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় বাঁকড়ি স্কুলমাঠে অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি মার্কসবাদীর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ।
সাইফুল হক ছাড়াও এদিন বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) প্রেসিডিয়াম সদস্য রফিকুজ্জামান লায়েক, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য আব্দুস সাত্তার, ওয়ার্কার্স পার্টি মার্কসবাদীর কেন্দ্রীয় নেতা অনিল বিশ্বাস, মোদাচ্ছের হোসেন মঞ্জু, দলের যশোর জেলা সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, নড়াইল জেলা সাধারণ সম্পাদক মনিউর রহমান জিফু, কংকন পাঠক, মুস্তাফিজুর রহমান লাল মিয়া, নারী মুক্তি সংসদের কেন্দ্রীয় নেত্রী ও বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিথীকা বিশ্বাস, যুবমৈত্রী নেতা মঞ্জুরুল আলম, যশোর জেলা ছাত্রমৈত্রী নেতা সুব্রতকুমার প্রমুখ।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিপুল বিশ্বাস।
স্মরণসভার আগে অমল সেনের সমাধিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন নেতারা।
স্মরণসভায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি মার্কসবাদীর সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ সরকারের সঙ্গে গাঁটছড়া বাধা বাম দলগুলোর সমালোচনা করে বলেনে, বাংলাদেশের রাজনীতিতে কমিউনিস্ট আন্দোলনে একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ঘটেছে। সেটি হলো নিজের মার্কা হারিয়ে বুর্জোয়াদের মার্কা নিয়ে রাজনীতি করার ঘটনা। কমরেড অমল সেন সারাজীবন লেজুড়বৃত্তির রাজনীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে গেছেন। কথা বলেছেন বুর্জোয়া রাজনীতির বিরুদ্ধে। অমল সেনের আদর্শকে ভুলে তারা রাজনীতি করছেন।
তিনি বলেন, কমিউনিস্ট ঐক্য প্রয়োজন, তবে মাথায় মাথায় টক্কর লাগার ঐক্য গ্রহণযোগ্য না।
আলোচনা সভা শেষে অমল সেন স্মরণে আলো প্রজ্বলন করা হয়। এছাড়া চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণও হয় এদিন।
চলমান অমল সেন স্মরণমেলায় এদিন বিপুল সংখ্যক মানুষ উপস্থিত হন।

আরও পড়ুন