সাংবাদিক জামিলকে হত্যা করা হয়েছে, দাবি পরিবারের

আপডেট: 03:33:42 17/05/2021



img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক, নিউজ টোয়েন্টিফোর টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি জামিল হাসান খান খোকনকে হত্যা করা হয়েছে। এই দাবি তার পরিবারের।
আজ ১৭ মে সোমবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়ার কোর্টপাড়ার হাসপাতাল মোড়ে নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে এমন বক্তব্য উপস্থাপন করে অভিযুক্তদের গ্রেফতার দাবি করেন তারা।
বক্তব্য রাখেন জামিল হাসানের ভাই কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি নাফিজ আহমেদ খান টিটু, জামিল হাসানের স্ত্রী কামরুন্নাহার খান। এসময় জামিল হাসানের ছেলে জায়েদ হাসান খান, মেয়ে জামিয়া খান জারা উপস্থিত ছিলেন।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নাফিজ আহমেদ খান টিটু বলেন, ১২ মে সন্ধ্যায় টাকা ভাগবাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে ও সংগঠনের পোস্ট দখল করতে পরিকল্পিতভাবে সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লবের বাসায় সেসহ যুগ্ম সম্পাদক মিলন উল্লাহ সহযোগীদের নিয়ে উত্তেজিত করে জামিলকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এতে জামিল অচেতন হয়ে ডিপ কোমায় চলে যান। পরে ঢাকার নিউরো সাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হলে পরের দিন (১৩ মে) রাত সাড়ে ১২টার দিকে তিনি মারা যান। এরপর ১৫ মে রাতে  তিনি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, মিলন উল্লাহ, সালমান সাহরিয়ার রাজু ও রাকিবুল হাসানের নাম উল্লেখ করে আরো ১০-১২ জনকে আসামি করে সদর থানায় হত্যার অভিযোগ করেন। পুলিশ ৭৪১ নম্বর সাধারণ ডায়েরি হিসেবে নথিভুক্ত করে তদন্ত করছে।
টিটু অভিযোগ করেন, অভিযোগ দিলেও পুলিশ জিডি নিয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিপ্লব খারাপ মানুষ, তার বিচার হওয়া উচিত। ঘটনার সময় সেখানে উপস্থিত থাকাদের আলাদা আলাদা করে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই প্রকৃত ঘটনা বের হয়ে আসবে বলে তিনি জানান।
সংবাদ সম্মেলনে জামিল হাসানের স্ত্রী কামরুন্নাহার খান বলেন, সুষ্ঠু তদন্তসাপেক্ষে দোষীদের বিচার করতে হবে।
এ বিষয়ে কুষ্টিয়া সদর মডেল থানার ওসি শওকত কবির বলেন, দ্রুত গতিতে তদন্ত চলছে, যদি অভিযোগ সত্যি হয় তবে জিডি মামলা হবে, আসামিদের আইনের আওতায় আনা হবে।

আরও পড়ুন