সাগরে লঘুচাপ, বন্দরে তিন নম্বর সংকেত

আপডেট: 08:53:57 14/08/2020



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : সাগরে সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে ঝড়ো হাওয়ার শঙ্কায় সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।
শুক্রবার জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান খান জানান, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও উড়িষ্যা-সংলগ্ন পশ্চিমবঙ্গ উপকূলীয় এলাকায় অবস্থান করা লঘুচাপটি আরো ঘনীভূত হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়েছে। এর প্রভাবে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় রয়েছে এবং বায়ুচাপের আধিক্য বিরাজ করছে।
“উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্রবন্দরে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে। এজন্য চট্টগ্রাম, পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দর এবং কক্সবাজার উপকূলকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।”
লঘুচাপের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, পিরাজপুর, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা ও অদূরবর্তী দ্বীপ এবং চরের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিকের চেয়ে ১-২ ফুটের বেশি জোয়ারের পানি প্লাবিত হতে পারে।
উত্তর বঙ্গোপসাগরে থাকা নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি চলাচলের পরামর্শ দিয়েছে অধিদপ্তর।
আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান খান বলেন, “সুস্পষ্ট লঘুচাপটি মৌসুমি নিম্নচাপে রূপ নিতে পারে, ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা নেই। নিম্নচাপে রূপ নিলেও এর প্রভাব উড়িষ্যা উপকূলে পড়তে পারে।”
আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, ভাদ্র মাসের প্রাক্কালে বাতাসে জলীয় বাষ্পের উপস্থিতি ও রোদের প্রভাবে অস্বস্তিকর গরম অনুভূত হচ্ছে। তবে তাপপ্রবাহ বইছে না। মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় দেশের বিভিন্ন এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে। বৃষ্টি হলেই ভ্যাপসা গরমও কেটে যাবে।
সূত্র : বিডিনিউজ

আরও পড়ুন