সাতক্ষীরায় বইমেলা উদ্বোধন

আপডেট: 07:54:16 16/11/2019



img

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ স ম আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, বই পড়ার মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু, স্বাধীনতা এবং মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে হবে। এখনো যেসব মুক্তিযোদ্ধা বেঁচে আছেন তাদের মুখ থেকে মুক্তিযুদ্ধের কাহিনি শুনতে হবে।
তিনি বলেন, বই পড়লে দেশপ্রেম ও সাংস্কৃতিক চেতনা সৃষ্টি হয়; উন্নত চরিত্রের অধিকারী হওয়া যায়। বই ছাড়া ঘরের পূর্ণতা পায় না। বইয়ের মাধ্যমে বঞ্চিত মানুষের অধিকার সম্পর্কে জানা যায়।
‘মুজিব বর্ষ’ পালন ও সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরির সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত আট দিনব্যাপী বইমেলা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।
জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের উদ্যোগে এবং জেলা প্রশাসন ও সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে শনিবার সকালে সাতক্ষীরা শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে এ মেলা উদ্বোধন করা হয়।
এ উপলক্ষে সকালে সাতক্ষীরা শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্ক থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবারো একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে মেলা উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সাতক্ষীরা সদর আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি ও অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাবেক উপচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।
সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মৎস্য ও পশুসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ডা. আফতাবুজ্জামান, সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আব্দুল মান্নান ইলিয়াস, যুগ্ম-সচিব শওকত আলী ও ফয়েজুর রহমান ফারুকি, সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় সাতক্ষীরার উপ-পরিচালক হুসাইন শওকত প্রমুখ।
এবারের বইমেলায় ৪২ প্রতিষ্ঠানের ৭০টি স্টল স্থান পেয়েছে। এর মধ্যে পাঁচটি সরকারি প্রতিষ্ঠানও ররেছে।
আগামী ২৩ মেলা শেষ হবে। মেলায় ৪০ ভাগ মূল্য ছাড় দেওয়া হবে। এছাড়া ২০০ টাকা মূল্যের বই কিনলে একটি করে র‌্যাফেল ড্র-এর কুপন দেওয়া হবে। বইমেলা শেষে লটারির মাধ্যমে দশটি আকর্ষণীয় পুরস্কার দেওয়া হবে বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।