সাতক্ষীরায় ‘গোলাগুলিতে মাদক ব্যবসায়ী’ নিহত

আপডেট: 05:28:35 30/07/2020



img

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাশদহার কয়ারবিল থেকে লিয়াকত আলী নামে এক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার হয়েছে; যাকে মাদক ব্যবসায়ী বলছে পুলিশ। ওই সময় তার পাশে পড়ে থাকা অস্ত্র, গুলি ও মাদকও জব্দ করা হয়েছে বলে পুলিশের ভাষ্য।
তাদের দাবি, লিয়াকত আলী একজন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। কয়ারবিল এলাকায় মাদকের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে লিয়াকত আলী মারা যেতে পারেন।
লিয়াকত সদর উপজেলার তলুইগাছা গ্রামের মৃত মোসলেম আলী সরদারের ছেলে। বৃহস্পতিবার ভোররাতে কথিত গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।
সাতক্ষীরা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর্জা সালাউদ্দীন বলছেন, সদর থানা পুলিশ খবর পায়, কয়ারবিল এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হচ্ছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে থানার ওসি আসাদুজ্জামানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। কয়ারবিল এলাকায় গিয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক ব্যক্তিকে দেখতে পাওয়া যায়। এছাড়া তার পাশে একটি রিভলবার, দুই রাউন্ড গুলি, একটি হাসুয়া, ৫০ বোতল ফেনসিডিল এবং ২০০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।
তিনি বলেন, পুলিশ বুলেটবিদ্ধ ব্যক্তিকে সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে মৃত ব্যক্তির পরিচয় জানা যায়। তিনি সদর উপজেলার উত্তর তলুইগাছা গ্রামের বাসিন্দা। সদর থানায় তার বিরুদ্ধে দশটি মাদক মামলা রয়েছে।
পুলিশ বলছে, তাদের ধারণা, মাদকের টাকা ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে কয়ারবিলে দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে সংঘর্ষ ঘটতে পারে।
লিয়াকতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানান সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

আরও পড়ুন