সেপটিক ট্যাঙ্কে নেমে শিক্ষকসহ তিনজনের মৃত্যু

আপডেট: 09:13:30 31/07/2020



img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার আশাশুনিতে সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে গিয়ে এক শিক্ষকসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার পুঁইজালা গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে।
মৃত ব্যক্তিরা হলেন, উপজেলার শ্রীউলা ইউনিয়নের পুঁইজালা গ্রামের লক্ষ্মীকান্ত সানার ছেলে ও পুঁইজালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জগদীশ সানা (৫৬), একই গ্রামের পরিমল সানার ছেলে তপনকুমার সানা (৪০) এবং সোনা দাসের ছেলে মদন দাস (৩০)।
শিক্ষক জগদীশ সানার ছেলে চন্দন সানা জানান, সেপটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কারের জন্য সুইপার মদন দাস সকালে কাজ শুরু করেন। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে তার কোন সাড়া না পাওয়ায় বাবা জগদীশ সানা সেফটি ট্যাংকের ভেতরে নামেন। এরপর বাবারও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। পরে তার কাকাতো ভাই তপন সানা ট্যাঙ্কের ভেতরে মুখ ঢোকান। কিছুক্ষণ পর তারও কোনো সাড়া না মেলায় ঘটনাটি সন্দেহজনক মনে হয়। তারা বুঝতে পারেন, ট্যাঙ্কের ভেতর বাতাসে অক্সিজেন কমে যাওয়ায় তিনজনই মৃত্যুমুখে পড়েছেন। দ্রুত তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় চিকিৎসক বিধান মণ্ডলের কাছে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সাতক্ষীরার সদর হাসপাতালে আনা হয় তিনজনকেই। কিন্তু হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক হাসিম কবির তাদের মৃত ঘোষণা করেন।
একই সঙ্গে তিনজনের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
আশাশুনি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীমবরণ চক্রবর্তী ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা শাকিল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন