স্বামীর সঙ্গে ফোনে বিতণ্ডার পর কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

আপডেট: 08:51:41 19/02/2020



img

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : চৌগাছায় বীথি খাতুন (২২) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। মোবাইল ফোনে স্বামীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডার পর তিনি আত্মহত্যা করেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।
বীথি উপজেলার ধুলিয়ানী ইউনিয়নের মুক্তারপুর গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী রাশেদুল ইসলাম খানের মেয়ে এবং যশোর সরকারি এমএম কলেজের অনার্সের ছাত্রী।
বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার ধুলিয়ানী ইউনিয়নের মুক্তারপুর গ্রামে তিনি আত্মহত্যা করেন।
ওই গৃহবধূর বিজিবি সদস্য স্বামীর নাম রিয়াদ হোসেন। তিনি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার আগমুন্দিয়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে।
ধুলিয়ানী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান (চেয়ারম্যানের অসুস্থতাজনিত কারণে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন) শাহিনুর রহমান খান বলেন, ‘বছরখানেক আগে ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মুন্দিয়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে বিজিবি সদস্য রিয়াদ হোসেনের সঙ্গে বীথির বিয়ে হয়। বীথি যশোর সরকারি এমএম কলেজের অনার্সের ছাত্রী। বিয়ের পর থেকেই স্বামী ও তার পরিবার তাকে নানাভাবে নির্যাতন করে আসছিল। মৃত্যুর আগে বীথি বাবার বাড়িতেই ছিল।’
বীথির পরিবারের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘বুধবার বিকেল চারটার দিকে মোবাইল ফোনে তার স্বামীর সাথে প্রায় ৩০ মিনিট কথা বলেন। এসময় বীথির সাথে মোবাইল ফোনে তার স্বামীর কথাকাটাকাটি ও ঝগড়া হয়। এরপর মোবাইলসহ সে বাবার বাড়ির একটি ঘরে গিয়ে দরজা আটকে দেয়। পরে কোনো একসময় গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে। সন্ধ্যার পর স্থানীয়রা তার লাশ উদ্ধার করে।’
তিনি বলেন, বিষয়টি দশপাকিয়া ক্যাম্প পুলিশকে জানানো হয়েছে।
দশপাকিয়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘সংবাদ পেয়েছি। আমরা ঘটনাস্থলে রওনা দিয়েছি।’

আরও পড়ুন