২৬ দিনেই বাবা-মাকে হারালো শিশুটি

আপডেট: 07:18:11 11/09/2020



img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : জন্মের সময় মারা যায় মা। আর জন্মের ২৫ দিন পর মারা গেলেন বাবা। ফলে মাত্র ২৬ দিন বয়সে বাবা মাকে হারিয়ে এতিম হলো হতভাগা শিশু মাসুম।
ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রাম। শুক্রবার সকালে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে শিশুটির বাবা সোহেল আহমেদ। এর ২৫ দিন আগে সিজার করতে গিয়ে মারা যায় তার মা মাছুরা বেগম। স্ত্রী মারা যাওয়ার পর থেকে মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে মাসুমের বাবা সোহেল।
সংবাদ পেয়ে শিশুটির বাড়িতে যান ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার। এসময় তিনি তার পরিবারের খোঁজ খবর নেন এবং শোকাহত পরিবারের সদস্যদের শান্ত্বনা দেন।
গলায় ফাঁস দিয়ে মারা যাওয়া সোহেলের বাবা সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আমার বউমা মারা যাওয়ার পর থেকে ছেলেটি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিল। নাওয়া-খাওয়া অনিয়মিত করায় অসুস্থ হয়ে পড়ে। ফলে প্রায়ই অস্বাভাবিক আচরণ করতো। রাজমিস্ত্রির কাজ করতো সে। শুক্রবার সকালে কাজে নিয়ে যেতে পাশের বাড়ির একজন ডাকতে আসে। এসময় সে ঘরে গিয়ে দেখে, গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে আছে সোহেল।’
ইউনিয়নের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার মো. এরশাদ আলী বলেন, ‘সংবাদ পেয়ে শিশুটির বাড়িতে গিয়েছিলাম। অবুঝ শিশুটিকে দেখলে খুব মায়া লাগছে, কষ্ট হচ্ছে। কিন্তু কিছু করার নেই। এখন জনপ্রতিনিধি হিসেবে মরদেহ দাফন কাফনের যাবতীয় ব্যবস্থা করেছি।’
‘শিশু মাসুম এখনো বাবা মাকে চিনতে শেখেনি। তার আগেই তারা পৃথিবী ছেড়ে চলে গেল। মাসুম বড় হয়ে হয়তো অন্য কারোর মধ্যে বাবা মায়ের ভালোবাসা খুঁজে ফিরবে,’ বলছিলেন মেম্বার এরশাদ।
ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার বলেন, ‘এতিম শিশুটিকে দেখে খুব কষ্ট হচ্ছে। আমি পরিবারের সাথে কথা বলেছি। অবুঝ শিশুটিকে এখন দাদা-দাদি ও নানি যৌথভাবে মানুষ করবে। শিশু ও তার পরিবারের জন্য আমার পক্ষ থেকে যতটুকু সহযোগিতা করার, করবো।’

আরও পড়ুন