‘ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মহিষ চুরির অভিযোগ মিথ্যা’

আপডেট: 05:47:33 30/07/2020



img

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : কালীগঞ্জ উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন সুমনের বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্রমূলক ও মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহারের দাবি করেছে ছাত্রলীগ। তার বিরুদ্ধে মহিষ চুরিতে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে কালীগঞ্জ ভূষণ রোডের উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
এতে লিখিত বক্তব্য পড়েন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাজিম উদ্দীন।
আরো উপস্থিত ছিলেন মহিষ চুরিতে অভিযুক্ত সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক রিয়াজ উদ্দীন, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনিচুর রহমান মিঠু মালিতা, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান সজল, ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক মোমতারিন রেফদৌস ডরিনসহ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের শতাধিক নেতাকর্মী।
লিখিত বক্তব্যে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি নাজিম উদ্দীন দাবি করেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ একটি ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। সংগঠনটির নেতাকর্মীরা সারাদেশে মানুষের সুখে-দুঃখে পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছে। অথচ একটি মহল সম্প্রতি কালীগঞ্জ উপজেলা শাখার নেতা মনির হোসেন সুমনের নামে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করার চেষ্টা করছে।
এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে এবং চার্জশিট থেকে সুমনের নাম প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি।
কোটচাঁদপুর উপজেলার গুড়পাড়া থেকে চলতি বছরের ১৬ জুন কৃষক নাসির উদ্দীনের দুটি মহিষ চুরি হয়। এ ঘটনায় কোটচাঁদপুর থানায় ২৬ জুন একটি মামলা হয়। মামলার পর জেলার পুলিশ কালীগঞ্জ উপজেলার চাঁচড়া গ্রামের সদ্য প্রয়াত আজগার আলীর ছেলে সেলিমের বাড়ি থেকে একটি মহিষ উদ্ধার করে। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন সেলিম। এসময় মহিষ উদ্ধার নিয়ে পুলিশের সঙ্গে হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনাও ঘটে। পরে আটক সেলিম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। সেখানেই নাম আসে কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন সুমনের।
আদালতে সেলিম জানান, তিনি চোর নন। মহিষটি শিবনগর গ্রামের মনির হোসেন সুমন, একই গ্রামের মিলন, কোটচাঁদপুরের বলুহর গ্রামের ঢালীপাড়ার তরিকুল ও চুয়াডাঙ্গার রশিদ তার কাছে বিক্রি করেন।
এমন সংবাদ গণমাধ্যমে আসার পর ঘটনা তদন্তে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রানা হামিদ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আওয়ালের সমন্বয়ে চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, ছাত্রলীগ নেতা মুশফিকুর রহিম নাছিম, তৌহিদুল ইসলাম, এনামুল হক আবু ও মো. রায়হান খান।

আরও পড়ুন