‘দরজায় খাদ্যদ্রব্য রেখে আসবে যশোর পুলিশ’

আপডেট: 07:01:41 28/03/2020



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : ঘরবন্দি গরিবমানুষের দুর্দশার কথা চিন্তা করে যশোরের পুলিশ সুপার অভিনব এক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তার নেতৃত্বাধীন পুলিশ ভোররাতে মানুষের ঘরের দরজায় খাদ্যদ্রব্য রেখে আসবে। ঘুম থেকে উঠে সেগুলো হাতে পেয়ে যাবে গরিবেরা।
এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ইতিমধ্যে কয়েকজন সংসদ সদস্যের সঙ্গে কথা হয়েছে জানিয়ে এসপি মোহাম্মাদ আশরাফ হোসেন বলেন, এই কাজে বিত্তবানরা এগিয়ে আসবেন বলে আশা করা যায়।
শনিবার বেলা তিনটার দিকে পুলিশ লাইনের সামনে থেকে পুলিশের উদ্যোগে জলকামানের মাধ্যমে রাস্তায় জীবাণুনাশক ছেটানো শুরু হয়। এই কার্যক্রম উদ্বোধনকালে উপস্থিত সাংবাদিকদের ওই কথা বলেন পুলিশ সুপার।
ওই সময় আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন শিকদার, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মোহাম্মদ মারুফ আহম্মেদ, কোতয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান প্রমুখ।
যশোরের পুলিশ সুপার এমন সময়ে এই ধরনের জনবান্ধব সিদ্ধান্ত নিলেন, যখন মণিরামপুরের এসিল্যান্ডসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের কিছু অতিউৎসাহী সদস্যের বাড়াবাড়ি জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি করেছে।
এসপি বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে গোটা দেশ এখন আতঙ্কিত। এই দুঃসময়ে পুলিশ, ডাক্তার এবং সাংবাদিকরা মাঠে থেকে কাজ করছে।
‘পুলিশ সুপার হিসেবে আমার দায়িত্ব জেলা পুলিশকে রক্ষা করা। করোনাভাইরাস প্রতিরোধের একটাই পথ গণসচেতনতা। সে কারণে পুলিশের সব স্থাপনার চারপাশে পানির সাথে জীবাণুনাশক মিশিয়ে ছিটিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করছি। এর ফলে একদিকে পুলিশ ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষা পাবে, অন্যদিকে এরকম কর্মকাণ্ড দেখে মানুষ উদ্বুদ্ধ হবে। মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে।’
এসপি বলেন, ‘আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ভোররাতে মানুষের ঘরের দরজায় খাদ্যদ্রব্য রেখে আসব। ঘুম থেকে উঠে মানুষ খাদ্যদ্রব্য হাতে পেয়ে যাবে। আমি কয়েকজন এমপি সাহেবের সাথে কথা বলেছি। তারাও আমার ডাকে সাড়া দেবেন। এই খবর শুনে সমাজের বিত্তবানরাও এগিয়ে আসবেন।’

আরও পড়ুন