ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ

আপডেট: 11:30:46 09/10/2021



img

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ দপ্তরের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ঝিনাইদহের শহীদ বীজ ভান্ডারের সত্ত্বাধিকারী শহিদুল ইসলাম।
শনিবার দুপুরে তার বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মদিনা বীজ ভান্ডারের মালিক আবু তাহের ও হাসান বীজ ভান্ডারের মালিক হাসান আহমেদসহ অন্য ব্যবসায়ীরা।
লিখিত বক্তব্যে শহিদুল ইসলাম উল্লেখ করেন, দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সাথে তিনি ঝিনাইদহে নানা ধরনের বীজের ব্যবসা করে আসছেন। এরই অংশ হিসাবে চলতি মৌসুমে ছয়টি উপজেলায় ধানের বীজ বিক্রি করা হয়েছে। হঠাৎ করে হরিণাকুণ্ডু উপজেলার হাকিমপুর গ্রামের আজিজার মণ্ডলসহ সাত কৃষক ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ দপ্তরে অভিযোগ করেন। এরপর থেকে দপ্তরটির ঝিনাইদহ জেলার সহকারী পরিচালক সুচন্দন মণ্ডল মাঝে মাঝে একা একা তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে নানা রকম প্রশ্ন, হুমকি ও দেখা করার কথা বলে যান। তিনি একা তার সাথে দেখা না করে একজন উকিল নিয়োগ করেন। এতে করে ওই কর্মকর্তা ক্ষিপ্ত হয়ে কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে সম্পূর্ণ আক্রোশমূলক, ক্ষমতার অপব্যবহার করে অন্যায়ভাবে দুই লাখ ২৯ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
তিনি বলেন, ‘আমার প্রতিষ্ঠানে প্রতিটি দশ কেজি ধানবীজ বস্তার সাথে একটি হলুদ ট্যাগ থাকে। যাতে বীজ পরীক্ষার তারিখ, জাতের নাম, মেয়াদ ও গুণগতমান সম্পর্কে স্পষ্ট উল্লেখ থাকে। কিন্তু কৌশলে কৃষকরা ট্যাগ না দেখিয়ে অভিযোগ দায়ের করে; যা প্রতারণার নামান্তর। পরে জরিমানা নেওয়া ওইসব কৃষকের জমিতে আমি গিয়ে দেখতে পাই, ধানগাছে এখন গজগজে থোড়, গঠনও খুব ভালো।’
সংবাদ সম্মেলনে এই বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানান এই ব্যবসায়ী।
বক্তব্য জানতে ঝিনাইদহ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সুচন্দন মণ্ডলের ফোনে একাধিকবার কল দিয়েও তার সঙ্গে যোগাযোগ সম্ভব হয়নি।

আরও পড়ুন