'মানবিক কারণে' ছেড়ে দেওয়া হলো যাত্রীদের

আপডেট: 10:27:59 27/11/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার, বেনাপোল (যশোর) : অবশেষে আট ঘণ্টা পর মানবিক কারণে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ভারতফেরত দুই শতাধিক বাংলাদেশি যাত্রীকে গন্তব্যে ফেরার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।
ভারত থেকে ফেরার সময় করোনা পরীক্ষার সনদ না থাকায় শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনে আটকে ছিলেন তারা। এসব যাত্রীর অধিকাংশই ভারতে গিয়েছিলেন চিকিৎসার জন্য।
গত ১৭ আগস্ট থেকে করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে বিজনেস ও মেডিকেল ভিসায় দেশি-বিদেশি যাত্রীদের ভারত প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়। শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) সকাল থেকে আকস্মিকভাবে ভারতফেরত বাংলাদেশিদের দেশে প্রবেশ করতে 'করোনা নেগেটিভ সনদ' লাগবে উল্লেখ করে নতুন নির্দেশনা দেয় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। হঠাৎ এমন সিদ্ধান্তে সীমান্তে এসে পরিবার-পরিজন নিয়ে ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা।
ভারত থেকে আসা যাত্রী সাইদুল ইসলাম জানান, তিনি করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে ভারতে গিয়েছিলেন। ফিরতে আবার করোনা নেগেটিভ সনদ লাগবে জানতেন না। ভারতের ইমিগ্রেশন ছেড়ে দিলেও বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগ আটকে দিয়েছে।
সালেহা খাতুন নামে অপর এক যাত্রী জানান, তিনি অসুস্থ স্বামীকে নিয়ে ভারতে গিয়েছিলেন চিকিৎসার জন্য। আগে থেকে করোনা নেগেটিভ সনদের বিষয়ে কর্তৃপক্ষ জানালে এ দুর্ভোগে পড়তে হতো না।
বেনাপোল ইমিগ্রেশন স্বাস্থ্য বিভাগের মেডিকেল অফিসার বিচিত্র মল্লিক জানান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় শুক্রবার থেকে ভারতফেরত দেশি-বিদেশি সব যাত্রীর বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে করোনা নেগেটিভ সনদ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। যারা এ খবর জানতেন না তারা আটকা পড়েন। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়। পরে যাত্রীদের প্রাথমিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের পরিদর্শক মহাসিন উদ্দীন জানান, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে এর আগে বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়ার সময় দেশ-বিদেশি সবার করোনা নেগেটিভ সনদ লাগছিল। এখন দ্বিতীয় ধাপে করোনা সংক্রমণরোধে ভারত থেকে ফেরার সময়ও ৭২ ঘণ্টার মধ্যে পরীক্ষা করানো নেগেটিভ সনদ লাগবে। শুক্রবার যেহেতু এ নিয়ম কার্যকর হয়েছে তাই অনেকে জানতে না পেরে সনদ সংগ্রহ করতে পারেননি। যার ফলে যাত্রীরা ইমিগ্রেশনে আটকা পড়েন। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলে মানবিক কারণে যাত্রীদের দুপুর দুইটার পর বাংলাদেশে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে আগামীকাল (শনিবার) থেকে সনদ ছাড়া ভারত থেকে কেউ বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারবে না বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন